প্রকল্প Phase-1

প্রকল্প Phase-1

প্রকল্পটি রাজউক কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন পূর্বাচল উপশহরের ৩নং সেক্টরের দক্ষিণ পার্শ্বে গুতিয়াব গ্রামে অবস্থিত। পর্যন্ত মোট ১১০০ বিঘা জমি সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রকল্পের মোট সম্ভাব্য আয়তন ১২০০ বিঘা হবে বলে আমরা আশা করছি। সদস্যদের চাহিদা মোতাবেক জমি ক্রয় করা হয় বিধায় বাজার দর অনুযায়ী সদস্যদেরকে মূল্য পরিশোধ করতে হয়।

প্রকল্প বাস্তবায়নের সুবিধার্থে সমিতির সকল সদস্যকে কিছু নিয়মকানুন মেনে চলতে হয় যা সমিতির প্রসপ্রেক্টাসে বর্ণিত হয়েছে। সকল নিয়ম সকল সদস্যের মেনে চলা বাধ্যতামূলক।

২০১৬ এর শেষ নাগাদ প্রকল্পের ১ম পর্যায়ের মাটি ভরাট কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। মাটি ভরাটের পর লেআউট চুড়ান্ত করে ২০১৭ সালে লটারীর মাধ্যমে প্লট হস্থান্তর করা হয়েছে। এরপর রাস্তাঘাট, ড্রেন সুয়ারেজ ব্যবস্থাপনা, বৈদ্যুতিক সংযোগ সহ প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণে কাজ ইতোমধ্যে চলমান রয়েছে। চুড়ান্ত ভাবে বরাদ্দকৃত প্লট সমূহ অবস্থান অনুযায়ী জমির তফসিল উল্লেখ্য পূর্বক সাফকবলা দলিল মূলে হস্তান্তর প্রক্রিয়া চলমান আছে।

প্রকল্প এলাকার অবস্থান :

আনন্দ হাউজিং সোসাইটির প্রকল্প এলাকা পূর্বাচল উপশহরের ৩নং সেক্টর (ভিআইপি সেক্টর নামে পরিচিত) লাগোয়া দক্ষিণ পাশে অবস্থিত। প্রকল্পটি পূর্বাচল উপশহরের দক্ষিণপূর্ব কোনে অবস্থিত। ৩০০ ফুট সড়ক থেকে ৫০০ মিঃ দূরত্বে (১ মিনিট হাটার দূরত্বে) অবস্থিত। এয়ারপোর্ট রোড থেকে এর দূরত্ব ১২ কিঃমিঃ। প্রকল্পভূক্ত জমির সিংহভাগ গুতিয়াব মৌজায় অন্তর্ভূক্ত। এছাড়াও জাঙ্গীর মসুরী মৌজার কিছু জমিও প্রকল্পভূক্ত। সর্বশেষ প্রণীত ড্যাপ ম্যাপে (ডিটেইল এরিয়া প্ল্যানিং) জমিগুলো আবাসিক এলাকা হিসাবে চিহ্নিত আছে। প্রকল্পের উত্তরে পূর্বাচল উপশহর, পূর্বদিকে আশালয় হাইজিং, দক্ষিণে ঢাকা ভিলেজ এবং পশ্চিম দিকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জলসিড়ি আবাসন প্রকল্প অবস্থিত।

সড়ক যোগাযোগ :

এয়ারপোর্ট রোড থেকে কুড়িল ফ্লাইওভার থেকে ৩০০ ফুট সড়ক দিয়ে গাড়ী নিয়ে স্বচ্ছন্দে যাওয়া যায়।এ ছাড়া যাত্রাবাড়ী থানার বাম দিকে পুরাতন ডেমরা সড়ক হয়ে পূর্বাচল উপশহর সড়ক দিয়েও যাওয়া যায়। উল্লেখ্য পূর্বাচল উপশহরের ৩০০ ফুট সড়ক থেকে প্রকল্পটির উত্তর সীমানা ৫০০ মিঃ দূরত্বে অবস্থিত। (অতি সন্নিকটে যা ১ মিনিট হেটেও যাওয়া যায়। প্রকল্পে ২টি অফিস বিদ্যমান রয়েছে।

প্রকল্পের মোট জমি :

প্রকল্পে পর্যন্ত সংগৃহিত জমির পরিমান ১১০০ বিঘা। আগ্রহী নতুন সদস্যদের অংশগ্রহণের ফলে ক্রমান্বয়ে এর পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। আনন্দ হাউজিং সোসাইটির জন্য যে সম্ভাব্য সীমানা র্নিধারন করা হচ্ছে তাতে হাউজিং সোসাইটির আয়তন হবে আনুমানিক ১২০০ বিঘা।